খেতে সুস্বাদু হলেও এভাবে মুরগির মাংস খাওয়া ক্ষতিকর

মাংস খেতে ভালোবাসেন না এমন মানুষ খুব কমই আছেন। আর তা যদি হয় মুরগির মাংস, তবে তো কথাই নেই। দেখা যায়, বাড়িতে প্রায় দিনই মুরগির মাংস রান্না করা হয়। এছাড়া বিভিন্ন রেস্টুরেন্টে নানার পদের
মুরগির মাংসের রেসিপি থাকে। যেসব রেসিপিগুলোর চাহিদাও থাকে তুঙ্গে।

কেবল খেতেই সুস্বাদু নয়, প্রোটিনের একটি আদর্শ উৎস হচ্ছে মুরগির মাংস। এই মাংসে চর্বি বা ফ্যাটের পরিমাণ কম থাকে। তাই স্বাস্থ্য সচেতন ব্যাক্তিদেরও পছন্দের তালিকায় রয়েছে মুরগির মাংস। তবে মুরগির মাংস খাওয়ার ফলে শরীরের ওপর এর কোনো ক্ষতিকর প্রভাব রয়েছে কিনা, এই প্রশ্ন অনেকের মনেই জাগে।

এ বিষয়ে স্বাস্থ্যবিষয়ক একটি ওয়েবসাইটে যুক্তরাষ্ট্রের স্বীকৃতিপ্রাপ্ত পুষ্টিবিদ লওরেন মানেকারের অভিমত প্রকাশিত হয়েছে।মানেকার বলেন, মুরগির মাংস অবশ্যই পছন্দ করি, তা যদি কিছু নির্দিষ্ট পদ্ধতিতে রান্না করা হয়। ‘বেইকড’, ‘গ্রিলড’ ও সৌতে করা মুরগির মাংস যেমন স্বাস্থ্যকর। তবে ডুবো তেলে লম্বা সময় ভাজা লবণ মেশানো মুরগির মাংস খাওয়া ঠিক নয়।

তাই ‘ফ্রাইড চিকেন’ যে একেবারেই বাদ দিতে হবে এমন নয়, পরিমাণে কম খেতে হবে। এই মাংসে যদি বাড়তি চর্বি, লবণ কিংবা চিনি যুক্ত না করা হয়, তবে এই মাংস স্বাস্থ্যকর।

মুরগির মাংসের উপকারিতা-মুরগির মাংস খেলে অনেকক্ষণ পেট ভরা থাকে। তাই ওজন নিয়ন্ত্রণে রাখতে ও হজমতন্ত্র সুস্থ থাকে।#যারা সন্তান নিতে চান তারা মুরগির মাংস খাবেন। নারীর প্রজনন ক্ষমতা ও পুরুষের বীর্জের গুণগত মান বাড়ায় মুরগির মাংস।

#অতিরিক্ত তেলে ভেজে না খেলে মুরগির মাংস হৃদযন্ত্রের জন্য উপকারী খাবার। মুরগির মাংস খাওয়া মাধ্যমে কোলেস্টেরল কমানো সম্ভব।#হাড়ের সুস্বাস্থ্যের জন্য মুরগির মাংস খেতে পারেন। প্রোটিনের আদর্শ উৎস মুরগির মাংস খাদ্যাভ্যাসে রাখলে তা হাড়কে জোগাবে জরুরি পুষ্টি উপাদান।

#মুরগির মাংসে মেলে ‘কোলিন’, যা স্মৃতিশক্তি ও মস্তিষ্কের অন্যান্য কাজ সঠিকভাবে সম্পাদন হওয়ায় সহায়তা করে। মুরগির মাংস থেকে পাওয়া যায় ভিটামিন বি টুয়েলভ, যা স্মৃতিশক্তি বাড়াতে সাহায্য করে।

#আয়রনের অভাবে যারা ‘অ্যানেমিয়া’ বা রক্তশূন্যতায় ভুগছেন, তাদের একটি সাধারণ সমস্যা হলো অবসাদগ্রস্ত থাকা। খাদ্যাভ্যাসে পর্যাপ্ত মুরগির মাংস আয়রনের জোগান বাড়াবে, যা পক্ষান্তরে বাড়াবে কর্মশক্তি।

Be the first to comment

Leave a Reply

Your email address will not be published.


*